দেশব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপকহারে বাড়ছে। গত একদিনে দেশের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যেই শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর। করোনা হানা দিয়েছে টুর্নামেন্টটিতেও। ভাইরাসটিতে বিভিন্ন দলের অন্তত ২০ জন ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফ আক্রান্ত হয়েছেন।তাইতো প্রশ্ন ওঠেছে বিপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়ে। টুর্নামেন্টটি চালিয়ে নেওয়া হবে কি না, না কি মাঝপথেই বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। আজ শুক্রবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সেগুলোর জবাব দিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কমিটির সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক। জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি খারাপ হলে সিদ্ধান্ত পাল্টাতেও পারে।ইসমাইল হায়দার মল্লিক বলেন, ‘এখনকার পরিস্থিতিতে (করোনা) স্বস্তির অবকাশ নেই। তবে আমরা চেষ্টা করছি বিপিএলটা সফলভাবে শেষ করার।’ এবার চট্টগ্রাম ও সিলেটেও টুর্নামেন্টটির কিছু ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ হলেও সেখানে ম্যাচ বাতিল করা যায় কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘না! দেখুন টুর্নামেন্টটার জন্য কিন্তু একই মাঠে টানা খেলা আয়োজন সম্ভব না। হয় আমাকে চার পাঁচদিনের বিরতি দিতে হবে। অন্যথায় আমাকে অন্য ভেন্যুতে স্থানান্তর করতে হবে।’তিনি বলেন, আর একটা জিনিস, আমাদের দ্বিপক্ষীয় সিরিজ কিন্তু এখন সিলেটেও হয়। সুতরাং ওই উইকেটকে আমাদের দেশি খেলোয়াড়দের অভ্যস্ত করাতে হবে। সেটাও কিন্তু আমাদের মাথায় নিতে হয়। এটা টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট, তাই আমরা এখন পর্যন্ত ভেন্যু হিসেবে সিলেট ও চট্টগ্রামকে সিলেক্ট করছি। আল্লাহ চাহেতো কোনো বাধাবিপত্তি না আসলে ওখানে খেলা চালাবো।’করোনা পরিস্থিতি খারাপ হলে বিসিবি পিছু হটবে কি না। এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, ‘পরিস্থিতি খারাপ হলে তো আর সেটা ধরাবাঁধা কোনো নিয়মের মধ্যে থাকবে না। আমরা অবশ্যই পরিস্থিতি দেখে এবং সবকিছু বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত পাল্টাবো।’