করোনা পরিস্থিতি

স্টাফ রিপোর্টার ঃ খুলনা বিভাগে ২৪ ঘন্টায় বেড়েছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা। তবে কমেছে শনাক্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বিভাগের ১০ জেলায়। একই সময় শনাক্ত হয় এক হাজার ১৮৬ জনের। এর আগে রোববার সকাল পর্যন্ত বিভাগে ৪৫ জনের মৃত্যু এবং এক হাজার ২৭৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।
বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৩ জনের মৃত্যু হয় কুষ্টিয়া জেলায়। বাকিদের মধ্যে খুলনায় ১১ জন, যশোরে ১১ জন, বাগেরহাট ও মেহেরপুরে তিনজন করে, নড়াইল ও মাগুরায় ২ জন করে এবং ঝিনাইদহে একজন মারা গেছেন।
করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৮৮ হাজার ২৪৮ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২ হাজার ২১৭ জন আর সুস্থ হয়েছেন ৬২ হাজার ৫৮২ জন।
বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় খুলনা জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৫৩ জনের। এ পর্যন্ত জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২২ হাজার ৬৪০ জনের। মারা গেছেন ৫৭৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৬ হাজার ৮২ জন।
বাগেরহাটে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৯৩ জনের। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৬৯১ জনের। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১১৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৮২০ জন।
সাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১১২ জনের। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৩৬৯ জন এবং মারা গেছেন ৮৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪ হাজার ৮৮ জন।
২৪ ঘণ্টায় যশোরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১৬৮ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৯১৯ জন। মোট মারা গেছেন ৩২২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১২ হাজার ৬৫৩ জন।
২৪ ঘণ্টায় নড়াইলে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৪১ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৯২৫ জনের। মোট মারা গেছেন ৮৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ১০৩ জন।
মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩৭ জনের শনাক্ত হয়েছে। এ জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৮২১ জনের। মোট মারা গেছেন ৬০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৫৫৪ জন।
ঝিনাইদহে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৮৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ১৯৪ জন। মোট মারা গেছেন ১৮৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৩৪৭ জন।
২৪ ঘণ্টায় কুষ্টিয়ায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২২৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৩ হাজার ৪২১ জনের। মোট মারা গেছেন ৫০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৫২৬ জন।
চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১১০ জনের। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৭৭০ জন। মোট মারা গেছেন ১৫০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৬৬৫ জন।
মেহেরপুরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৬০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৪৯৮ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৭৪৪ জন।
৫ হাসপাতালে মৃত্যু ১৪ ঃ খুলনার পাঁচটি হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চারজন, জেনারেল হাসপাতালে একজন, শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তিনজন, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চারজন এবং সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দু’জনের মৃত্যু হয়। সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের দেয়া প্রতিবেদনে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।
খুমেক ল্যাবে ১০৬জনের করোনা শনাক্ত ঃ খুলনা মেডিকেল কলেজের আরটি পিসিআর ল্যাবে গতকাল সোমবার ৩৭৬টি নমুনা পরীক্ষার পর ১০৬জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। খুমেক’র উপাধ্যক্ষ ডা: মো: মেহেদী নেওয়াজ এ তথ্য জানান। শনাক্ত হওয়া ১০৬ জনের মধ্যে খুলনার ৮৮জন, বাগেরহাটের ১২জন, সাতক্ষীরার একজন, যশোরের তিনজন এবং নড়াইলের দু’জন রয়েছেন।