আফগানিস্তানে ক্ষমতার দখলে নেওয়া তালেবান নতুন সরকার গঠন করেছে। সংগঠনটির মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) অ্যাক্টিং সরকারের সদস্যদের নাম ঘোষণা দিয়েছেন। এতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়া সিরাজউদ্দিন হাক্কানি যুক্তরাষ্ট্রের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় অবস্থান করছেন। যার মাথার দাম ৫০ লাখ ডলার (সাড়ে ৪২ কোটি টাকার বেশি) ধরা আছে সেখানে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।প্রতিবেদনে বলা হয়, তালেবানের ঘোষিত সরকারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে হাক্কানি নেটওয়ার্কের নেতা সিরাজউদ্দিনের নাম ঘোষণা করা হয়।সিএনএন জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় যে কয়টি নাম আছে তাতে হাক্কানি নেটওয়ার্কও আছে। সংগঠনটির সঙ্গে আল কায়দার যোগসাজশ রয়েছে।হাক্কানি নেটওয়ার্কের বর্তমান প্রধান সিরাজউদ্দিন হাক্কানির নাম এফবিআইর ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় আছে। আজ মঙ্গলবারও তার নাম সেখানে দেখা গেছে।নতুন রাষ্ট্রপ্রধানের নাম প্রস্তাব করলো তালেবানতাতে বলা হয়েছে, ২০০৮ সালে কাবুলে হোটেলে বোমা হামলা চালিয়ে ৬জন মার্কিনিকে হত্যার অভিযোগে তাকে খোঁজা হচ্ছে। এছাড়া ওই বছর তৎকালীন আফগান প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগও রয়েছে সিরাজউদ্দিন হাক্কানির বিরুদ্ধে।হাক্কানিকে ধরিয়ে দিলে কিংবা তাকে গ্রেফতারের তথ্য দিলে ৫০ লাখ ডলার পুরস্কার মিলবে বলে ঘোষণা দেওয়া আছে এফবিআইর ওয়েবসাইটে।গত মাসে ক্ষমতায় তালেবানরা ক্ষমতায় আসার পরপরই তারা বলেছিল যে আগস্টের শেষের দিকেই তারা একটি সরকার ঘোষণা করবেন। তালেবানের সিনিয়র নেতা আমিরুল মুমিনিন শেখ হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দকে রাঈস-ই-জামহুর অথবা রাঈস-উল-ওয়াজারা অথবা আফগানিস্তানের নতুন রাষ্ট্রপ্রধান এবং মোল্লা বারাদার আখুন্দ ও মোল্লা আব্দুস সালামকে তার ডেপুটি করার প্রস্তাব দেন।অ্যাক্টিং সরকারের ঘোষণা তালেবানেরতালেবান বলেছে, একইভাবে হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রবীণ আরেকজন নেতা সিরাজউদ্দিন হাক্কানিকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে প্রস্তাব করা হয়েছে। তিনি পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোর গভর্নর মনোনয়ন দেওয়ার কর্তৃত্বও পেয়েছেন; যেখান থেকে হাক্কানি নেটওয়ার্কের উত্থান ঘটেছিল। এসব প্রদেশের মধ্যে আছে, পাকতিয়া, পাকতিকা, খোস্ত, গার্দেজ, নানগরহার এবং কুনার।মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ বর্তমানে তালেবানের শক্তিশালী সিদ্ধান্ত-গ্রহণকারী পরিষদ রেহবারি শুরা বা নীতি-নির্ধারণী পরিষদের প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন। তালেবানের তীর্থস্থান হিসেবে পরিচিত কান্দাহারে জন্ম তার। সশস্ত্র এই গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম একজন তিনি।